শনিবার , ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
  1. অনুষ্ঠান
  2. অর্থনীতি
  3. আইন আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. করোনা সচেতনতা
  6. করোনাভাইরাস
  7. কৃষি ও প্রকৃতি
  8. খেলাধুলা
  9. গণমাধ্যম
  10. চাকরীর খবর
  11. জাতীয়
  12. টপ নিউজ
  13. টিভি Live
  14. তথ্যপ্রযুক্তি
  15. দেশ জুড়ে

পীরগঞ্জে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে করতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলন, হুমকিতে ফসলি জমি ও ঘরবাড়ি।

প্রতিবেদক
MD: Rabiul iasalm
সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১ ১২:৫৬ অপরাহ্ণ

 

পীরগঞ্জে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে করতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলন, হুমকিতে ফসলি জমি ও ঘরবাড়ি।


রংপুর জেলা পীরগঞ্জ উপজেলা ৬নং টুকুরিয়া ইউনিয়নে দক্ষিণ দুর্গপুর, মোনাইল, টিয়োরমারী,বিসনা সাতোয়া মৌজায় করতোয়া নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলাচ্ছে প্রভাবশালীরা। এতে  ফসলি জমি এবং ঘরবাড়ি হুমকিতে পড়েছে। ভুক্তভোগী টিয়োরমারী গ্রামের শাহাদাত হোসেন বলেন করতোয়া নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বালু উত্তোলন বন্ধ না করলে আমাদের অনেক কৃষি জমি নদীগর্থে বিলিন হয়ে যাবে তাই আমি এক সচেতন নাগরিক হিসেবে আমাদের পীরগঞ্জের  অভিভাবক জাতীয় সংসদের স্পিকার, ডাঃশিরীন শারমিন চৌধুরীর সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এলাকা বসবাস কারী ফারুক বলেন প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ীরা উপজেলা  খালাশপীর  হাটের পশ্চিমপাশে করতোয়া নদী উপর তীরবর্তী  কয়েক মৌজায় অন্তত ২০টি স্থানে ড্রেজার ও শ্যালো মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু তুলছেন।
শুরু মাত্র দুর্গাপুরে মৌজায় কয়েক মিটারের মধ্যে ড্রেজার মেশিন চলে প্রতিদিন ৭/১০ টা। টিয়োরমারী গ্রামে লুৎফর রহমান বলেন এতে নদের তীরে রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বালু উত্তোলনের কারণে বিভিন্ন স্থানে ফসলী জমি ধসের সৃষ্টি হয়েছে।
তাই শুরু মাত্র অবৈধ ড্রেজার বন্ধ করলে আমরা বাঁচব না সেই জমি গুলো বাচাতে হলে নদী তীর ব্লক দিয়ে বেধে দিতে হবে তা নাহলে আমাদের সব জমি নদী গর্তে বিলিন হয়ে যাবে।

টিয়োরমাড়ী,  করতোয়া নদীর তীরবর্তী বাসিন্দারা জানান, প্রভাবশালীদের আমরা অনেক বালু ব্যবসায়ীকে অনুরোধ সত্ত্বেও বালু উত্তোলন অব্যাহত রেখেছেন। সারা দিনরাত ট্রাকে বালু পরিবহন করায় গ্রামীণ সড়কগুলো ধসে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ছে। আবার বালু তোলার কারণে  করতোয়া নদী তীরবর্তী ফসলি জমি ও বাড়িঘর বাড়ি হুমকি মুখে এখন। প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসন এবং জনপ্রতিনিধিদের কাছে অভিযোগ করে প্রতিকার মেলেনি। দুইবছরে ধরে এই ভাবে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে কিছু অসাধু চক্র আমরা দিকেছি যে  এতো দীর্ঘ সময় কোন এলাকার বালু উত্তোলন করে নাই করে প্রশাসন তা বন্ধ করে দিয়েছে এখানে কেনো দিচ্ছে না আমরা বুঝতে পারছি না।

 

এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসের সাথে যোগাযোগ করলে কোন সারা পাওয়া যায় নাই। শুধু মাত্র বালু উত্তোলন বিষয় উপর কথা বলতে চাইলে, তিনি ব্যস্ত দিকে ফোনটি কেটে দেন।

সর্বশেষ - ধর্ম

ব্রেকিং নিউজ