• English
  • আজ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিক্ষার্থীর নকশায় নির্মিত পাবিপ্রবির দৃষ্টিনন্দন শহীদ মিনার

৭:৫৯ অপরাহ্ণ | শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১ দেশ জুড়ে, শিক্ষা

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (পাবিপ্রবি) নির্মিত হয়েছে ৫২ ফুট উচ্চতা শহীদ মিনার। এর নকশা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মাহবুব হাসান ত্বহা।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে শহীদ মিনারের উদ্বোধন করেছেন পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম রোস্তম আলী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থায়ী কোনো শহীদ মিনার ছিল না। আমি যোগদান করার পর থেকেই ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মাণ করব। ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে আমার দেয়া সেই প্রতিশ্রুতিরই আজ বাস্তবায়ন ঘটল।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ভাষা শহীদদের স্মরণে এই শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে বাংলাভাষার চেতনা আরও ছড়িয়ে পড়বে।

পাবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার খসরু পারভেজ বলেন, ভাষার মাধ্যমে একজন ব্যক্তির ধ্যান-ধারণা ও চিন্তা ভাবনা প্রকাশ পায়। এই শহীদ মিনারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাংলাভাষার প্রতি চেতনা, ভালোবাসা ও আবেগ আরও বৃদ্ধি পাবে।

শহীদ মিনার উদ্বোধনের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) বিজন কুমার ব্রহ্ম, প্রক্টর ড. প্রীতম কুমার দাস, পরিবহন প্রশাসক ড. মো. কামরুজ্জামান, গেস্ট হাউজ প্রশাসক ড. মো. হাসিবুর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা দপ্তরের পরিচালক ড. সমীরন কুমার সাহা, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী লে. কর্নেল (অব.) জি এম আজিজুর রহমান, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন অব রশিদ ডন, সাধারণ সম্পাদক মো. সোহাগ হোসেন, কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মো. মহিউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার পাভেল, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদ চৌধুরী আসিফ, সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল ইসলাম বাবু সহ কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪৮০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে। উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৫৪ লাখ টাকা ব্যয়ে এই শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়েছে। গত বছর ২১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করা হয়।